২৬শে জুলাই, ২০১৭ ইং
Breaking::

কতটা কঠিন বাংলাদেশের কাজটা?

99bca4af09f3c35ee5beafb79310a334-during-sabbir

অবিশ্বাস্যকেই তাড়া করছে বাংলাদেশ। এখনো!

অবিশ্বাস্যই তো! জয়ের জন্য বাংলাদেশের লক্ষ্য ২৮৬। দিনের আলো শেষ হয়ে যাওয়ায়, সে লক্ষ্য থেকে আজ ৩৩ রান দূরেই থামতে হয়েছে। তাই ‘অবিশ্বাস্য এক জয়’, নাকি ‘একটুর জন্য হলো না’—সেটি এখনই বলা যাচ্ছে না। বাংলাদেশ যদি ২৮৬ রান করেই ফেলে সেটি তো ইতিহাসের অংশই হয়ে যাবে। টেস্ট ইতিহাসই যে এমন কীর্তি দেখেছে খুব কম।
‘খুব কম’কে সংখ্যায় প্রকাশ করলে দেখা যাচ্ছে, সেটি হলো মাত্র ৩৪! টেস্টে ২৮৫ বা তার বেশি রান তাড়া করে জেতার ঘটনা মাত্র ৩৪বার। ২২২৪ টেস্টের ইতিহাসে সংখ্যাটি যে কতটা নগণ্য সেটা বোধ হয় না বললেও চলে। রান তাড়া করে সবচেয়ে বড় জয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের।
২০০৩ সালে অ্যান্টিগা ৪১৭ তারা করে ৭ উইকেট হারিয়েই ৪১৮ রান করে ফেলেছিল ব্রায়ান লারার দল। টেস্টে চার শ তাড়া করে ম্যাচ জেতার ঘটনাই আছে আর মাত্র তিনটি। আর ঠিক ২৮৬ রানের লক্ষ্য পেয়ে ম্যাচ জেতার ঘটনাও আছে একটি। সেটা কিন্তু ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই, ১৯২৯ সালে মেলবোর্ন টেস্টে ৫ উইকেট হারিয়ে খুব সহজেই ম্যাচ জিতে নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া।
কিন্তু কাজটি আসলে অতটা সহজ নয়। মাত্র ৩৪ বার হয়েছে এ ঘটনা, এতেই বোঝা যাচ্ছে কতটা কঠিন এ কাজ। আর শুধু উপমহাদেশ হিসেব করলে সংখ্যাটি নেমে আসে ৮-এ। এবং সবগুলো ঘটনাই হয়েছে গত ২২ বছরের মধ্যে! মজার ব্যাপার হলো এই ৮ বারের মধ্যে মাত্র দুইবার জিতেছে উপমহাদেশের বাইরের কোনো দল জিতেছে এত বড় লক্ষ্য তাড়া করে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে দুবারই প্রতিপক্ষ ছিল বাংলাদেশ।
চতুর্থ ইনিংসে ২৮৬ রানের বেশি রান তাড়া করায় সবচেয়ে সিদ্ধহস্ত অস্ট্রেলিয়া, মোট ১২ বার এ কাজ করেছে অস্ট্রেলিয়া। এরপর সর্বোচ্চ ৫ বার করে করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ড। পাকিস্তান ৩ বার করেছে তিনবার। ভারত ও শ্রীলঙ্কার আছে ২বার করে এ কীর্তি করে দেখানোর ঘটনা।
বাংলাদেশ যে এ কীর্তি কখনো করতে পারেনি সেটা না বললেও সবাই জানেন। সত্যি কথা হলো চতুর্থ ইনিংসে ২৮৬-র বেশি রান বাংলাদেশ করতে পেরেছেই মাত্র ৩ বার। প্রথমটি তো অনেকেরই মনে থাকবে, ২০০৮ সালে ঢাকায় ৫২১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে বাংলাদেশ একপর্যায়ে জয়ের আশাই দেখছিল! শেষে ৪১৩ রানেই সন্তুষ্ট হয়েছিল বাংলাদেশ। অন্য দুই ঘটনা এই চট্টগ্রামেই, ২০১০ সালে ইংল্যান্ড ও ভারতের বিপক্ষে ৩৩১ ও ৩০১ রানের দুটি ইনিংস আছে বাংলাদেশের। তিনটি ম্যাচেই হেরেছে বাংলাদেশ।
কাল তাই নিজেদের ইতিহাস নতুন করে লেখার সুযোগ আছে বাংলাদেশের। খুব বেশি না, মাত্র ৩৩ রানই তো!