২৬শে জুলাই, ২০১৭ ইং
Breaking::

বিচক্ষণতার সাথে পরিস্থিতি মোকাবেলা করে লক্ষ্যপানে এগিয়ে যেতে হবে -শিবির সেক্রেটারী জেনারেল

photo_2016-10-18_17-21-36

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের সেক্রেটারী জেনারেল ইয়াছিন আরাফাত বলেন, ছাত্রশিবির বরাবরই রাজনৈতিক ও রাষ্ট্রীয় জুলুম নির্যাতনের শিকার হয়ে চলেছে। কিন্তু কোন বাধাই ছাত্রশিবিরের অগ্রযাত্রাকে দমিয়ে দিতে পারেনি। এখন ষড়যন্ত্রের ডাল পালা আরও বিস্তৃত হয়েছে। তাই বিচক্ষণতার সাথে পরিস্থিতি মোকাবেলা করে লক্ষ্যপানে এগিয়ে যেতে হবে।

তিনি আজ ছাত্রশিবির টাঙ্গাইল শহর শাখা আয়োজিত দায়িত্বশীল সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। টাঙ্গাইল শহর সভাপতি মোঃ মনিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মানবাধিকার সম্পাদক শাহ মোঃ শাহফুজুর রহমান ।

শিবির সেক্রেটারী বলেন, আমরা জানি আমাদের আদর্শিক পথ চলায় আদর্শহীনরা বাধার প্রাচির তৈরী করবে। এটাই ঐতিহাসিক বাস্তবতা। ছাত্রশিবির তার জন্মলগ্ন থেকেই এই কঠিন বাস্তবতার সম্মুখ্যিন হয়ে আসছে। কিন্তু পিছু হটেনি। আজ বাংলাদেশে ইসলাম ও ইসলামী আন্দোলনের বিরুদ্ধ যে ষড়যন্ত্র হচ্ছে, সাহস ও বিচক্ষণতার সাথে তার মোকাবেলা করতে হবে। ত্যাগ ও কুরবানীর চরম পরাকাষ্ঠা দেখিয়ে আমাদেরকে পথ চলতে হবে। কোন ষড়যন্ত্রকে বিনা চ্যালেঞ্জে ছেড়ে দেয়া হবে না। বরং প্রতিটি ষড়যন্ত্রকে বুদ্ধিমত্তা ও বিচক্ষণতা দিয়ে মোকাবেলা করেই লক্ষ্যপানে এগিয়ে যেতে হবে।

তিনি বলেন, দেশের শিক্ষাব্যাবস্থা আজ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। একমুখী শিক্ষাব্যাবস্থা কায়েমের নামে মাদ্রাসা তথা ধর্মীয় শিক্ষাকে সংকুচিত করার পায়তারা চলছে। সরকার পরিকল্পিত ভাবে মাদ্রাসা ছাত্রদের বঞ্চিত করছে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে মাদ্রাসা ছাত্রদের ভর্তির উপর চলছে অলিখিত নিষেধাজ্ঞা। সম্প্রতি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি প্রকৃয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রদেকে হাতে গোনা মাত্র কয়েকটি বিষয় ছড়া বাকি বিষয়গুলোতে ভর্তির সুযোগ দেয়া হচ্ছে না, যা কোন ভাবেই মেনে নেয়া যায় না। আমরা অনতি বিলম্বে এই বৈষম্যমুলক নীতি প্রত্যাহার করে যোগ্যতার ভিত্তিতে সকল বিষয়ে মাদ্রাসা ছাত্রদেরকে ভর্তির সুযোগ দেয়ার দাবী জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, ছাত্রশিবিরের দায়িত্বশীলদের চরম ধৈর্য্যরে পরিচয় দিয়ে দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করে যেতে হবে। আল্লাহর সন্তোষ লাভের আশায় আমাদের কাজের গতিকে আরো বাড়াতে হবে। আন্দোলনকে দৃঢ় পদক্ষেপে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। যত প্রতিকূলতাই আসুক না কেন, আমরা আমাদের লক্ষ্য পানে এগিয়ে যাবই ইনশাআল্লাহ।

-বিজ্ঞপ্তি