২৬শে জুলাই, ২০১৭ ইং
Breaking::

বছরে স্তন ক্যান্সারে মারা যান ৭ হাজার

breast_cancer

রতি বছর দেশে ১৪ হাজার ৮২২ জন নারী স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হন। এর মধ্যে মারা যান ৭ হাজার ১৩৫ জন। শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) বাংলাদেশ স্তন ক্যান্সার সচেতনতা ফোরাম আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে আগামী স্তন ক্যান্সার সচেতনতা দিবস (১০ অক্টোবর) উদযাপন উপলক্ষে নেওয়া অক্টোবর মাসব্যাপী ঢাকাসহ সারাদেশে বিশেষ প্রচার অভিযান কর্মসূচির বিস্তারিত তুলে ধরা হয়।

পাশাপাশি ক্যান্সার গবেষণা আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল এজেন্সি ফর রিসার্চ অন ক্যান্সার তাদের সর্বশেষ প্রতিবেদনের তথ্য প্রকাশ করে।
লিখিত বক্তব্যে ফোরামের প্রধান সমন্বয়কারী ডা. মো. হাবিবুল্লাহ্ তালুকদার রাসকিন বলেন, নারী ক্যান্সার রোগীদের মধ্যে আক্রান্ত ও মৃত্যুহার যথাক্রমে ২৩.৯ শতাংশ ও ১৬.৯ শতাংশ।

তবে জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল ভিত্তিক ক্যান্সার নিবন্ধনের ২০১৪ সালে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, নারী ক্যান্সার রোগীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি তথা ২৭.৪ শতাংশই স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত। নারী-পুরুষ নির্বিশেষে এই ক্যান্সারের স্থান দ্বিতীয় তথা ১২.৫ শতাংশ। শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে ফুসফুসের ক্যান্সার ১৭.৯ শতাংশ। স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীদের গড় বয়স প্রায় ৪৩ বছর।

রাসকিন বলেন, বর্তমানে দেশের মোট জনসংখ্যা আনুমানিক ১৫ কোটি ২৪ লাখ ৮ হাজার জন। এর মধ্যে প্রতিবছর সব মিলিয়ে মোট ১ লাখ ২২ হাজার ৭১৫ জন ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছেন। আর মারা যাচ্ছেন ৯১ হাজার ৩৩৯ জন।

তিনি বলেন, সচেতনতার অভাবে আমাদের দেশে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অনেক দেরিতে ক্যান্সার সনাক্ত হয়। যে কারণে রোগীদের সুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। এ রোগ সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করতে পারলে প্রাথমিক পর্য‍ায়ে ক্যান্সার প্রতিরোধ করা সম্ভব।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) গাইনেকোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক সাবেরা খাতুন, অপরাজিতা-এর চেয়ারপারসন নিলুফার তাসনিম, সিসিপিআর-এর নির্বাহী পরিচালক মুসাররাত সৌরভ, ডা. সাঈদা খানম, হেলেনা মহসিনা সরকার, ডা. সাইয়েদা খান, ডা. ইয়াসমিন সুলতানা, ডা. তারেক এম হুসেইন, সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।